নামাজ ও অজুর উপকারিতা

বিজ্ঞানের আলোকে অজু ও নামাজের অবিশ্বাস্য কিছু উপকারিতা

বিজ্ঞানের আলোকে অজু ও নামাজের অবিশ্বাস্য কিছু উপকারিতা

নামাজের উপকারিতা অনেক। পরকালের শান্তির পাশাপাশি বিজ্ঞানের আলোকেও রয়েছে নামাজের অবিশ্বাস্য ১১ টি উপকারিতা। নিচে এ বিষয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো-

বিজ্ঞানের আলোকে রয়েছে নামাজের অবিশ্বাস্য ১১টি উপকারিতাঃ

১. নামাজে সিজদাকালে আমাদের মস্তিস্কে রক্ত দ্রুত প্রবাহিত হয়। ফলে আমাদের স্মৃতি শক্তি অনেক বৃদ্ধি পায়। ২. নিয়মিত নামাজ আদায়ে আমাদের মনে অসাধারণ পরিবর্তন আসে।

৩. নামাজ মানুষের ত্বক পরিষ্কার রাখে। যেমন- ওজুর সময় আমাদের দেহের মূল্যবান অংশগুলো পরিষ্কার করা হয় বলে বিভিন্ন প্রকার জীবাণু হতে আমরা সুরক্ষিত থাকি।

৪.নিয়মিত নামাজ আদায়ে মানুষের প্রাণশক্তি বৃদ্ধি পায়।

৫. নামাজে দাঁড়ানোর পর আমাদের চোখ জানামাজে সুনির্দিষ্ট একটি কেন্দ্রে স্থির থাকে। ফলে কর্মক্ষেত্রে আমাদের মনোযোগ বৃদ্ধি পায়।

৬. অজুর সময় মুখমন্ডল যেভাবে পরিস্কার করা হয় তাতে আমাদের মুখে একপ্রকার মেসেজ করা হয়। ফলে আমাদের মুখের রক্তপ্রবাহ বৃদ্ধি পায় এবং বলিরেখা হ্রাস পায়।

৭. কিশোর বয়সে নামাজ আদায় করলে মন পবিত্র থাকে। ফলে নানা প্রকার অসামাজিক কাজ থেকে বিরত থাকা সম্ভব হয়।

৮. নামাজের মাধ্যমে আমাদের দেহের গুরুত্বপূর্ণ ব্যায়াম সাধিত হয়। যে ব্যায়াম ছোট-বড় সবাই করতে পারে।

৯. নামাজে ওজুর সময় মুখমন্ডল পাঁচবার ধৌত করা হয় বলে আমাদের মুখের ত্বক উজ্জল হয়।

১০. কেবল নামাজের মাধ্যমেই চোখের নিয়মিত যতই নেওয়া হয় বলে অধিকাংশ নামাজ আদায়কারীর দৃষ্টিশক্তি বজায় থাকে।

১১. নামাজ মানুষের দেহের কাঠামো বজায় রাখে বলে শারীরিক বিকলঙ্গতা হ্রাস পায়। সবশেষে বলি, নামাজ আদায় করলে লোকসানের কিছু নেই। তাই আমাদের উচিত নিয়মিত নামাজ আদায় করা। আল্লাহপাকের নির্দেশ মেনে চলা।

Share on Facebook

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *